কাঞ্চন-নিপুণ প্যানেল দৃষ্টান্ত তৈরি করবে, বললেন মিশা

ইলিয়াস কাঞ্চন ও নিপুণ প্যানেল দৃষ্টান্ত তৈরি করবে বলে মন্তব্য করেছেন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির বিদায়ি সভাপতি মিশা সওদাগর। আজ রবিবার রাজধানীর বিএফডিসিতে নির্বাচিত সদস্যদের শপথ অনুষ্ঠান ছিল। এ অনুষ্ঠানে শনিবার জায়েদের প্রার্থিতা বাতিল করে নির্বাচিত নিপুণও উপস্থিত ছিলেন। বিকেল সাড়ে ৫টায় মিশা সওদাগর নিজেই শপথ পাঠ করান নতুন সভাপতিকে।

শপথ অনুষ্ঠান শেষে মিশা সওদাগর তাঁর বক্তব্যে নতুন এই প্যানেলকে কার্যত স্বীকৃতি দিয়ে ফেললেন। বললেন, ‘ইলিয়াস কাঞ্চন ও নিপুণ প্যানেল দৃষ্টান্ত স্থাপন করে যাবে এমন পারফরম্যান্স করবে এবং আমরা এই প্যানেলকে যে সময় সাহায্য-সহযোগিতা লাগে আমরা করব, আমরা এই প্যানেলকে সহযোগিতা করব যেকোনো সময়।’

আয়িশার পরকীয়া প্রেম ও অন্যান্য

পেছনের সকল বিষয় ভুলে যেতে বললেন মিশা। সাবেক এই সভাপতি বলেন, ‘আমি বরাবরই বলছি শিল্পী সমিতির নির্বাচন একটি মালাবদলের পালা। যাকে রায় দেবে তাকে মালা দিতে হবে। আজকে মালাবদলের অনুষ্ঠান হয়ে গেছে। আমি শুধু আপনাদের একটাই অনুরোধ করব, পেছনের দিকে আমরা যেন না তাকাই। পেছনে কী ঘটেছে না দেখি, আজকে থেকে আমরা আগামীর দিকে সুস্থভাবে সমৃদ্ধ একটা সংগঠন গড়ে তুলব, একটা শিল্প গড়ে তুলব, সেই ব্যবস্থা আমরা করি।’

ব্যালে নাচ যখন স্বাধীনতা ও মুক্তির প্রতিশব্দ

ইলিয়াস কাঞ্চনের ওপর দারুণ আস্থা রয়েছে মিশা সওদাগরের। অন্তত তাঁর বক্তব্যে এটাই প্রকাশ পেয়েছে। বললেন, ‘আজকে থেকে যিনি সভাপতি হচ্ছেন আমাদের সবার প্রাণপ্রিয় ইলিয়াস কাঞ্চন সাহেব, আমি তাঁকে অনুরোধ করব যে আপনি সবাইকে নিয়ে টোটাল ২১ জনকে নিয়ে এমন কাজ করবেন, দৃষ্টান্ত স্থাপন করবেন, যেটা পূর্বে হয় নাই। সবার মধ্যে যেন কোনো ব্যারিয়ার না থাকে, আমি বিশ্বাস করি আপনি আলোকিত মানুষ; আপনার আলোয় আলোকিত হবে গোটা ইন্ডাস্ট্রি। সে জায়গা থেকে আমার অনড় বিশ্বাস যে আপনি এটা পারবেন।’

এই শপথ অনুষ্ঠানে মিশা-জায়েদ খান প্যানেল থেকে নির্বাচিত কেউ ছিলেন না। কিন্তু মিশা নিজেই বললেন, ‘আজকে যদি সবাই থাকত আমি খুশি হতাম, পরবর্তীতে সবাই যেন থাকে আপনি স্টেপ নিয়ে সেই কার্যকর ভূমিকা রাখবেন। আজকে আমাদের মুরব্বিরা আসছেন, শ্রদ্ধেয় আলমগীর ভাই, শ্রদ্ধেয় আমাদের সোহান ভাই, শ্রদ্ধেয় ঝন্টু সাহেব সবাই মিলেমিশে এভাবে শিল্পী সমিতিকে এগিয়ে নেবেন।’কাঞ্চন-নিপুণ

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Translate »