ঝড়ে ভাঙলো নিউটনের সেই ‘আপেল গাছ’

অনেকে মজাই করে বলেন, নিউটনের মাথায় আপেলটা না পড়লে নাকি মহাকর্ষ সূত্রই আবিষ্কার হতো না। যে আপেল গাছ নিউটনকে দিলো প্রবল প্রজ্ঞা, এবার সেই আপেল গাছটাই ঝড়ে ভেঙে গেলো। কেমব্রিজ ইউনিভার্সিটির বোটানিক্যাল গার্ডেনে থাকা বিখ্যাত এই আপেল গাছটিকে ঐতিহাসিক গুরুত্ব মেনে ডাকা হতো ‘নিউটন অ্যাপেল ট্রি’ নামে।

স্যার আইজ্যাক নিউটনের মহাকর্ষ সূত্র আবিষ্কারের সঙ্গে যে আপেল গাছটির কথা সব সময় চলে আসে, সেই আপেল গাছটি (ক্লোন) ঝড়ে উপড়ে পড়েছে। ক্যামব্রিজ ইউনিভার্সিটির বোটানিক্যাল গার্ডেনে গাছটি পড়ে যায় বলে জানিয়েছে বিবিসি।

বোটানিক্যাল গার্ডেনের কিউরেটর ড. স্যামুয়েল ব্রোকিংটন জানান, ১৯৫৪ সালে গাছটি লাগানো হয়েছিল। এই গাছটির মাতৃগাছ থেকে মাটিতে পড়া আপেলের মাধ্যমে মহাকর্ষের সূত্র আবিস্কার করেছিলেন। পরে ওই গাছ থেকে ক্লোন করা হয়েছিল উপড়ে পড়া গাছটি।

১৫০ টাকার সাইকেল মেকানিক থেকে আজ কোটি টাকার ব্যবসা

ক্যামব্রিজ ইউনিভার্সিটির বোটানিক্যাল গার্ডেনে গাছটির আরও একটি ক্লোন রয়েছে। যেটা শিগগিরই বাগানের অন্যস্থানে লাগানো হবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। মূল গাছটি লিঙ্কনশায়ারের গ্রান্থামের উলসথর্প ম্যানরের। উনিশ শতকে গাছটি ঝড়ো হাওয়ায় পড়ে যায়। তবে গাছটি বেঁচে ছিল এবং বছরের পর বছর ধরে গ্রাফটিং-এর মাধ্যমে বংশবিস্তার করানো হয়।

ছত্রাকজনিত কারণে দুর্বল হয়ে গত শুক্রবার ঝড়ে গাছটি পড়ে যায়। বিজ্ঞানী নিউটনের অবদানকে স্মরণীয় করে রাখতে গাছটির ক্লোন করে রাখা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Translate »