Healthy Lifestyle: যৌনতায় বিশ্বসেরা গ্রিক-রা, কত নম্বরে রয়েছে ভারত? যা জানাচ্ছে সমীক্ষা

বিশ্ব সংসারে সবথেকে আদিম ক্রিয়া যৌনতা, তবে যৌনতা নিয়ে আজও আমাদের মনে অনেক রাখঢাক রয়েছে! যৌন সমস্যা নিয়ে আজও প্রকাশ্যে কথা বলতে অস্বস্তিবোধ করেন সিংহভাগ মানুষে! কিন্তু খিদে পাওয়া, ঘুম পাওয়ার মতো যৌনতা-ও একটি স্বাভাবিক জৈবিক ক্রিয়া! গবেষকরা দাবি করেন, একটি সুস্থ-স্বাভাবিক জীবনের অন্যতম চাবিকাঠি সুস্থ-স্বাভাবিক যৌনজীবন! সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, যৌনতায় সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছে গ্রিকরা! কোন স্থানে রয়েছে ভারত ?

সম্প্রতি এক কন্ডোম প্রস্তুতকারক সংস্থার তরফ থেকে একটি সমীক্ষা করা হয়েছে যেখানে প্রায় ২৬ টি দেশের তিরিশ হাজার মানুষের সঙ্গে কথা বলা হয়। সেই সমীক্ষায় দেকা গিয়েছে, যৌনতায় সবচেয়ে এগিয়ে রয়েছে গ্রিস। তথ্য অনুযায়ী, গ্রিসের ৮৭ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষ সপ্তাহে অন্তত এক বার সঙ্গমে লিপ্ত হন।

এই সমীক্ষা অনুযায়ী ভারতে যৌনতা নিয়ে এখনও হাজারও লুকোছাপা রয়েছে! এদেশের ৯৫ শতাংশ মানুষই কন্ডোম ছাড়া সঙ্গমে লিপ্ত হতে পছন্দ করেন। সমীক্ষা বলছে, এদেশে বেশিরভাগ মহিলাদের নাকি অর্গাজম সম্পর্কে কোনও পরিষ্কার ধারণা নেই, তাই বেশিরভাগ ক্ষেত্রে সঙ্গম ব্যাপারটা পুরুষদের হাতে নিয়ন্ত্রিত হয়।

এই সমীক্ষা অনুযায়ী ভারতে যৌনতা নিয়ে এখনও হাজারও লুকোছাপা রয়েছে! এদেশের ৯৫ শতাংশ মানুষই কন্ডোম ছাড়া সঙ্গমে লিপ্ত হতে পছন্দ করেন। সমীক্ষা বলছে, এদেশে বেশিরভাগ মহিলাদের নাকি অর্গাজম সম্পর্কে কোনও পরিষ্কার ধারণা নেই, তাই বেশিরভাগ ক্ষেত্রে সঙ্গম ব্যাপারটা পুরুষদের হাতে নিয়ন্ত্রিত হয়।

আমেরিকা ও ইংল্যান্ডে সেক্স নিয়ে কোনও ছুৎমার্গ নেই বরং ওদেশে পুরুষ মহিলা নির্বিশেষে যৌনতায় এক্সপেরিমেন্ট করতেই বেশি পছন্দ করেন।

সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, ব্রাজিলের ৮৮ শতাংশ মহিলারা নাকি মিলনের শেষে অর্গাজম না হওয়ার কথা গোপন রাখেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Translate »